ছিনতাই করে পালানোর সময় আটক ১

দেশদর্পণ ডেস্ক :: সিলেটের কন্দিয়ারচর এলাকায় এক লাখ টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় এক ছিনতাইকারীকে আটক করেছে  পুলিশ। তবে টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে সিএনজি অটোরিকশা চালকের বেশে থাকা আরেক ছিনতাইকারী। রবিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

আটককৃত ব্যক্তির নাম আলকাছ খা (৩৫)। সে নগরের কুমারপাড়ার ঝর্ণারপাড় এলাকার বাসিন্দা। তার সঙ্গে ছিনতাইয়ের সহযোগী হিসেবে ছিল নগরের সোনাতলা এলাকার আব্দুর রহমান (৩৫) নামের আরেকজন।

মোগলাবাজার থানা পুলিশ জানায়, মোগলাবাজারের মাহমুদাবাদ গ্রামের রিপন মিয়া (২৫) পেশায় ট্রাকচালক। তিনি ট্রাক চালিয়ে মালিকের চারদিনের জমানো এক লাখ টাকা সাথে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন।  তিনি রবিবার রাত ২টার দিকে ক্বিনব্রিজের দক্ষিণ পাশে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। রাত ২টা ৪০ মিনিটের দিকে একজন যাত্রীসহ একটি সিএনজি অটোরিকশা এলে তিনি সেটিতে ওঠেন। মোগলাবাজারের কন্দিয়ারচর এলাকায় পৌঁছার পর অটোরিকশা থামিয়ে দেন চালক আব্দুর রহমান। এরপর পেছনে থাকা যাত্রীবেশী ছিনতাইকারী আলকাছ খা ও আব্দুর রহমান মিলে ছুরির ভয় দেখিয়ে সাথে যা আছে সব দিয়ে দিতে বলে রিপনকে। এতে রাজি না হলে রিপনের বুকের বাম পাশে ছুরিকাঘাত করেন আলকাছ। এতে জখম হন রিপন। এ সময় ছিনতাইকারীরা তার পকেটে থাকা এক লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে অটোরিকশাযোগে সিলেট শহরের দিকে যেতে থাকে।

পুলিশ আরও জানায়, এই ছিনতাইয়ের ঘটনা প্রত্যক্ষ করেন আরেক সিএনজি অটোরিকশা চালক মো. রাজা মিয়া (৩৪)। তখন রাজা মিয়া নিজের অটোরিকশা নিয়ে ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করে ‘ডাকাত ডাকাত’ বলে চিৎকার করতে থাকেন। মোগলাবাজারের খালোমুখ বাজারের কাছে থানার টহল দলের এসআই কামাল হোসেন অটোরিকশার পালিয়ে যাওয়া ও পেছনের আরেকটি অটোরিকশা থেকে ডাকাত ডাকাত চিৎকার শুনে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। পরে মোগলাবাজার থানার ওসি আখতার হোসেন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ছাহাবুল ইসলামসহ অন্যরা ছিনতাইকারীদের অটোরিকশাকে ধাওয়া দেন।

একপর্যায়ে মোগলাবাজারের সোনারগা আবাসিক এলাকার কাছে সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের পাশে অটোরিকশা ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ছিনতাইকারীরা। ওই সময় আলকাছ খাকে আটক করে পুলিশ। তবে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় আব্দুর রহমান। ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশার নম্বর হলো সিলেট-থ-১২-২২৯৫।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোগলাবাজার থানার ওসি আখতার হোসেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, এ ঘটনায় মোগলাবাজার থানায় মামলা হয়েছে। মামলা নং-০২ তারিখ-০৩/০২/২০২০ খ্রিঃ ধারা-৩৯৪। পলাতক ছিনতাইকারী সিএনজি চালককে গ্রেফতার ও ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধারের জোর প্রচেষ্টা চেষ্টা অব্যাহত আছে।