সিলেট-বার্মিংহাম ফ্লাইট চালুর দাবি

দেশদর্পণ ডেস্ক :: যুক্তরাজ্য সফররত বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলীর কাছে সিলেট থেকে বার্মিংহামে বিমানের সরাসরি ফ্লাইটের দাবিতে ক্যাম্পেইন কমিটির পক্ষ থেকে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রতিমন্ত্রীর কাছে এই স্মারকলিপিটি প্রদান করেন ক্যাম্পেইন কমিটির আহ্বায়ক জিয়া তালুকদার, সদস্য সচিব আশরাফুল ওয়াহিদ দুলাল ও উপদেষ্টা মোহাম্মদ মারুফ।

এ সময় প্রতিমন্ত্রির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বেসামররিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জননেন্দ্র নাথ সরকার, যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম, ডেপুটি হাইকমিশনার মোহাম্মদ জুলকার নাইন প্রমুখ।

জানা যায়, বার্মিংহামবাসীর পক্ষ থেকে মিডল্যান্ডস-এর দীর্ঘদিনের দাবি সংবলিত এ স্মারকলিপিটি অত্যন্ত অন্তরিকতার সঙ্গে প্রতিমন্ত্রী গ্রহণ করেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রী নীতিগতভাবে বার্মিংহামের দাবির প্রতি একাত্মতা ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে বিমানের ফ্লাইট চালুর বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনসাপেক্ষে দাবিটি বাস্তবায়নের দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি। এ সময় বিমানের উন্নয়নে নানা পদক্ষেপ এবং বিমানের যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধি করে প্রবাসীদের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে সরকারের আন্তরিকতার কথা তুলে ধরেন প্রতিমন্ত্রী।

ক্যাম্পেইন কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রীকে দেওয়া স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ‘মিডল্যান্ডস গ্রেট ব্রিটেনের মধ্যভূমি হিসেবে খ্যাত। বার্মিংহাম শহর এই মধ্যভূমির মূল প্রাণকেন্দ্র। এই মধ্যভূমিতে প্রায় লক্ষাধিক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতদের বসবাস। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় যে, স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত এ অঞ্চলের বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতরা বাংলাদেশে যাতায়াত করতে লন্ডন হয়ে যেতে হচ্ছে, যা অতিরিক্ত সময় ও ব্যয়সাপেক্ষ। পরিবার-পরিজন নিয়ে যাতায়াত করতে এটা একটা অতিরিক্ত বোঝার মত অনেকের কাছে।’

বিভিন্ন জরিপের কথা উল্লেখ করে স্মারকলিপিতে বলা হয়, ‘বিমানের সরাসরি ফ্লাইট যদি চালু করা হয় তাহলে এটি প্রবাসীদের জন্য যেমন সুবিধাজনক এবং যাতায়াতে আরামদায়ক হবে, তেমনি বিমানের জন্যও হবে লাভজনক। গত কয়েক বছর ধরে মিডল্যান্ডবাসীর পক্ষ থেকে বার্মিংহামে বিমানের সরাসরি ফ্লাইট চালুর দাবিতে ক্যাম্পেইন হচ্ছে। বার্মিংহামে ফ্লাইট চালুর ব্যাপারে সরকারের ইতিবাচক মনোভাবের ব্যাপারে আমাদের বলা হলেও এ ব্যাপারে পরবর্তীতে কোনো কার্যকর উদ্যোগ পরিলক্ষিত হয়নি।’

বার্মিংহামে বিমানের সরাসরি ফ্লাইটের বিষয়ে বার্মিংহাম ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থানগত কারণে যুক্তিযুক্ত ও বিমানের জন্য লাভজনক উল্লেখ করে স্মারকলিপিতে বলা হয়, ‘লন্ডনের পর যাত্রীদের সুবাধাজনক এবং বিমানের জন্য লাভজনক স্থান হলো বার্মিংহামে বিমানের ফ্লাইট চালুকরণ। কারণ ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থানের হিসেবে লন্ডনের পর বাংলাদেশিদের যাতায়াতের ক্ষেত্রে বার্মিংহাম হলো “সেন্ট্রাল পয়েন্ট”। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতের অবস্থানের দিক দিয়ে লন্ডনের পর বার্মিংহাম হচ্ছে দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর।’